জর্জিয়া বিএনপির নতুন কমিটির সভাপতি নাহিদুল খান ও সাধারণ সম্পাদক মামুন শরীফ

808

বিশেষ প্রতিবেদকঃ যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় গত ৮ ডিসেম্বর রোববার অনুষ্ঠিত জর্জিয়া বিএনপি’র কাউন্সিল থেকে সদস্যদের সরাসরি ভোটে অনানুষ্ঠানিকভাবে নাহিদুল খান সাহেল সভাপতি হিসেবে পুনঃ নির্বাচিত হয়েছেন এবং সাধারণ সম্পাদক মামুন শরীফ ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সজল খান নির্বাচিত হয়েছেন বলে বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গেছে।

নাহিদুল খান সদ্য মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির সভাপতি এবং মামুন শরীফ সহসভাপতির দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে শরীফ মেয়াদ উত্তীর্ণ কমিটির পূর্ববর্তী কমিটিতে আরও একবার সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

কাউন্সিলের মধ্যমণি হিসেবে লন্ডন থেকে আগত বিএনপির সহ আন্তজার্তিক বিষয়ক সম্পাদক ও উত্তর আমেরকিার সাংগঠনিকের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা আনোয়ার হোসেন খোকন ওইদিন নির্বাচনের ভোট গ্রহণের সময় সার্বক্ষণিক তত্তাবধানের মাধ্যমে নতুন কমিটি গঠনের পুরো প্রক্রিয়াটি সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করেন।

নির্বাচন কমিশনের পক্ষ থেকে অনানুষ্ঠানিকভাবে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদকের নাম ঘোষণা করাহলেও নবনির্বাচিত অন্যান্য কর্মকর্তাদের নাম ও পদবী জনসমক্ষে প্রকাশ করা হয়নি। এব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক মামুন শরীফ জানান, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের কাছ থেকে চূড়ান্ত অনুমোদন পাওয়ার পরই পুর্নাঙ্গ কমিটির সকলের নাম ও পদবী প্রকাশ করা হবে।

এদিকে নির্বাচন শেষ হওয়ার পর কোন কোন সামাজিক মিডিয়ায় নবনির্বাচিতদের নাম উল্লেখ করে স্ট্যাটাস দেয়া হয়েছে। তবে কে কোন পদে তা প্রকাশ করা হয়নি। সজল খানের ফেস বুকের স্ট্যাটাস অনুযায়ী কার্যকরী কমিটির অন্যান্য নির্বাচিত নেতৃবৃন্দরা হলেন মোহাম্মদ আলী লদী, ফয়সল শেখ, আজিজুল হাকিম,তানভির আহমেদ, রায়হান আহমেদ রাহী, তুহিন খান, বেলায়েত হোসেন রতন ও মাহবুব আহমেদ।

নতুন কমিটির নির্বাচন শেষে দলের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “নতুন কমিটির সরাসরি ভোটের মাধ্যমে প্রবাসে জর্জিয়া বিএনপি গনতান্ত্রিক পদ্ধতির ভিত্তি স্থাপন করেছে। প্রবাসের রাজনীতিতে জর্জিয়া বিএনপির এটি একটি নব দিগন্তের সূচনা। সচরাচর প্রবাসিদের রাজনীতি আবর্তিত হয়ে আসছে সিলেকশন পদ্ধতিতে, এতে দলীয় কর্মীদের নেতা নির্বাচনের কোনো সুযোগ থাকেনা, যাদের আর্থিক ও সামাজিক প্রাধান্য বেশী, তাদের আনুকুল্যে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই কমিটি হয়ে থাকে। এতে করে দলের তৃণমূল পর্যায়ে গনতন্ত্রের অনুশীলনের কোন পরিবেশ তৈরি হয় না এবং অনেক ক্ষেত্রে অযোগ্য কর্মিরা নেতৃত্বের পদে আসীন হয়। ফলে দলের মধ্যে তৈরি হয় না ত্যাগী কর্মী ও নেতা”।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও উল্লেখ করা হয়, “বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা মরহুম শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আদর্শে অনুপ্রাণিত ও তারুণ্যের অহংকার দেশনায়ক তারেক রহমানের নির্দেশনা অনুযায়ী বিএনপি জর্জিয়া শাখা দলের মধ্যে গণতান্ত্রিক চর্চার শুভ সূচনা করে এবারই প্রথম বহিবিশ্বে দলীয় সদসদের প্রত্যক্ষ ভোটের মাধ্যমে কমিটি গঠনের ইতিহাস রচনা করেছে। আর এই কাউন্সিল পর্যবেক্ষন করার জন্য জর্জিয়াস্থ বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রায় সকল স্তরের গণমান্য ব্যক্তিগন উপস্থিত ছিলেন। এই কাউন্সিলের মাধ্যমে আগামী দুই বছর মেয়াদের কমিটি গঠিত হল। নব নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ কিছুদিনের মধ্যেই দায়িত্ব গ্রহণ করবেন বলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কাউন্সিলে জানিয়েছেন।”

নতুন কমিটির নির্বাচনে নির্বাচন কমিশনের দায়িত্বে ছিলেন যথাক্রমে প্রধান নির্বাচন কমিশনার শাকুর মিন্টু ও দুইজন নির্বাচন কমিশনার যথাক্রমে ডিউক খান ও আজহারুল ইসলাম ফারুক।

সাংগঠনিক দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা প্রধান অতিথি আনোয়ার হোসেন খোকন ছাড়াও কাউন্সিলে উপস্থিত ছিলেন জর্জিয়া বিএনপির সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ জামান ঝন্টু, প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক ইব্রাহিম রহমান, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব জর্জিয়ার সভাপতি মুস্তাফা কামাল মাহমুদ, স্টেট সিনেটর পদপ্রাথী, জর্জিয়া বিএনপির সাবেক সভাপতি ও বর্তমানে উপদেষ্টা জসিমউদ্দিন ও অপর স্টেট সিনেটর পদপ্রার্থী ও সমিতির সাবেক সভাপতি জাহাঙ্গীর হোসেন।

আরও সংবাদ
error: Content is protected !!