বিদেশে দক্ষ চালক পাঠাবে সরকার

49

বেকারত্ব দূর করতে আগে থেকেই নানা উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থান তৈরি করে বড় একটি অংশকে কাজে লাগাতে চলছে জোর প্রক্রিয়াও। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, আগে অনেকেই নামমাত্র প্রশিক্ষণ নিয়ে বিদেশে গাড়ি চালাতে গিয়েছেন। তবে তারা দক্ষ শ্রমিকের তুলনায় কম সুযোগ-সুবিধা পেয়েছেন।
এবার আমরা যাদের বিদেশে পাঠাব, তাদের দক্ষ করে তুলে পাঠানো হবে। এর অংশ হিসেবে এবার দেশের এক লাখ দুই হাজার ৪০০ গাড়ি চালককে আন্তর্জাতিক মানের প্রশিক্ষণ দেবে দেওয়া হবে। এরপর তাদের সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্য ও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চাকরি দেওয়া হবে।
মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এ সংক্রান্ত একটি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছ।
সূত্র জানায়, ‘দেশ-বিদেশে কর্মসংস্থানের জন্য ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ প্রদান’ নামের এ প্রকল্পটি প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে নেওয়া হয়েছে। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। এতে খরচ হবে ২৬৭ কোটি ৩৪ লাখ ৭৩ হাজার টাকা। যার পুরোটাই সরকার দেবে। ২০২০ সালের জানুয়ারি থেকে ২০২৪ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে।
এ বিষয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বলেছেন, বিদেশে যারা কাজ করতে যায়; বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্যে গাড়ি চালকের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত জানিয়েছেন, এক লাখ ভালো মানের চালক পাওয়া গেলে একদিনেই চাকরি দিতে পারবেন। এটি শুধু সৌদি আরবই নয়, অন্য দেশ তো আছেই। প্রশিক্ষণ শেষে সঙ্গে সঙ্গে তারা চাকরি পেয়ে যাবে। তাদের লাইসেন্স দিয়ে সাজিয়ে বিদায় দেওয়া হবে।
তিনি বলেন, আমরা একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয় একটা প্রকল্প নিয়েছে, এক লাখ চালককে প্রশিক্ষণ দেবে আন্তর্জাতিক মানের। এ জন্য দেশের সর্বত্র প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের যেসব প্রশিক্ষণ কেন্দ্র আছে, সেখানে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। প্রকল্পের যৌক্তিকতায় বলা হয়েছে, দেশের ক্রমবর্ধমান অর্থনৈতিক উন্নয়নের গতিধারা বেগবান করার পূর্বশর্ত হলো জনশক্তিকে সত্যিকারভাবে দক্ষ মানবসম্পদে রূপান্তর করা।
এজন্য প্রয়োজন প্রশিক্ষণ ব্যবস্থার মান উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ। গাড়ির সংখ্যা ও সড়ক দুর্ঘটনার হার দিন দিন বাড়তে থাকায় দেশ-বিদেশে দক্ষ চালকের চাহিদা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। সৌদি আরবে প্রায় এক লাখ চালকের কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে।
প্রকল্প থেকে জানা যায়, এক লাখ দুই হাজার ৪০০ জনকে ড্রাইভিং প্রশিক্ষণ, ১২৮টি ডাবল কেবিন পিকআপ, আটটি ট্রাক ও একটি মাইক্রোবাস ক্রয়, প্রশিক্ষণ যন্ত্রপাতি, অফিস যন্ত্রপাতি ক্রয় এবং প্রশিক্ষক ও জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে।

আরও সংবাদ
error: Content is protected !!